• ৩০শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ , ১৬ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ , ২২শে জিলকদ, ১৪৪৫ হিজরি

কুষ্টিয়ায় ডা: লিজা-ডা: রতন ম্যাটসের নবীন বরন ও বিদায় অনুষ্ঠানে আলহাজ্ব সদর উদ্দিন খান তরুণদের দক্ষ করে গড়ে তুলছে ডা: লিজা-ডা: রতন ম্যাটস ও নার্সিং ইনস্টিটিউট

khaskhabarbd24
প্রকাশিত মার্চ ১২, ২০২৩

কুষ্টিয়ায় ডা: লিজা-ডা: রতন ম্যাটস ও ডা: লিজা নার্সিং ইনস্টিটিউট তরুণ প্রজন্মকে দক্ষ জনশক্তি হিসেবে গড়ে তোলায় বিশেষ অবদান রেখে চলেছে বলে জানিয়েছেন কুষ্টিয়া জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বীর মুিক্তযোদ্ধা আলহাজ্ব সদর উদ্দিন খান।
তিনি বলেন, বৈশ্বিক মহামারি কোভিড-১৯ দুর্যোগ ঠেকাতে ও সুস্থ্য মাতৃত্ব এবং নবজাতক শিশু জন্মের জন্য নার্স-মিডওয়াইফদের কোনো বিকল্প নেই। ডা: এএফএম আমিনুল হক রতন ও ডা: আসমা জাহান লিজা পরিচালিত ডা: লিজা-ডা: রতন ম্যাটস ও লিজা নার্সিং ইনস্টিটিউট দক্ষ নার্স ও মিডওয়াইফ তৈরির মাধ্যমে স্বাস্থ্যসেবা খাতে বিশেষ অবদান রেখে চলেছে।
শনিবার (১১ মার্চ ) সকালে কুষ্টিয়ার ডা: তোফাজ্জুল হেলথ এন্ড ডায়াগনষ্টিক সেন্টারের ৫ম তলায় ডা: লিজা-ডা: রতন ম্যাটস ও লিজা নার্সিং ইনস্টিটিউটের শিক্ষার্থীদের নবীন বরন ও বিদায় অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।
তিনি বলেন, ডা: তোফাজ্জল হোসেন ছিলেন  কুষ্টিয়ার ঐতিহ্যবাহী পরিবার। তারই সন্তান ডা: আমিনুল হক রতন। কুষ্টিয়ার একজন মানবিক চিকিৎসক, সুস্থাধারার রাজনীতে রসাথে সম্পৃক্ত। এছাড়াও তিনি সামাজিক ও মানবিক কর্মখান্ডের সাথে নিজেকে মেলে ধরেছেন।
তিনি আরও বলেন, করোনাকালীন সময়ে অনেক ক্লিনিক-হাসপাতাল বন্ধ থাকলেও জীবনের কথা চিন্তা না করে তারা দু’জন তার স্ত্রীডা: (আসমা জাহান লিজা) চিকিৎসক মিলে তার ক্লিনিক চালু রেখে মানুষকে চিকিৎসা সেবা দিয়ে এসেছেন। তারা এখানে ম্যাটস চালু করেছেন। নার্সিং ইন্সটিটিউট কুষ্টিয়ায় প্রতিষ্ঠা করিয়েছেন। আমরা কুষ্টিয়াবাসী গর্বিত তারা এসব প্রতিষ্ঠান চালু করেছেন। এখান থেকে বের হয়ে শিক্ষার্থীদের চাকরির ব্যভস্থা নিশ্চিত করবে। বিদায়ী শিক্ষার্থীদের উদ্দেম্যে তিনি বলেন, আপনারা যারা এখান থেকে বের হয়ে যাচ্ছেন তারা কিন্তু সেবার লক্ষ্যে কাজ করে যাবেন। মনে রাখবেন, মানুষের জীবন যখন বিপন্নর দিকে চলে যায় তাকে সুস্থ করলে যেভাবে সেই মানুষের দোয়া কাজে লাগে আবার চিকিৎসায় অবহেলার কারনে তাদের বদ দোয়ায় আপনার জীবনটাকে বিষিয়ে তুলতে পারবে। তাই মানুষের কল্যানে নিজেকে বিলিয়ে দিতেও সকলের প্রতি উদাত্ত আহবান জানান।
ডা: লিজা-ডা: রতন ম্যাটসের চেয়ারম্যান ডা: আসমা জাহান লিজার সভাপতিত্বে ও ডা: লিজা-ডা: রতন ম্যাটসের অধ্যক্ষ ডা: আমিনুল হক রতনের সার্বিক পরিচালনায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালের তত্বাবধায়ক ডা: মো: রফিকুল ইসলাম, ম্যাটস কুষ্টিয়ার অধ্যক্ষ ডা: হেলিশ রঞ্জন সরকার, কুষ্টিয়া জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি চৌধুরী মুর্শেদ আলম মধু, কুষ্টিয়া সদর থানা আওয়ামীলীগের সভাপতি জিপি এ্যাড. আ স ম আক্তারুজ্জামান মাসুম, বিএমএ জেলা শাখার সহসভাপতি ডা: আইয়ুব আলী, কুষ্টিয়া জেলা আওয়ামীলীগের সদস্য হাবিবুল হক পুলক, আবৃত্তি পরিষদের সভাপতি কবি আলম আরা জুই, নাসিবের পরিচালক আব্দুস সাত্তার, জাসদের (রব) কুষ্টিয়ার সভাপতি মিজানুর রহমান মির্জা, বিএফএর সাবেক সভাপতি আবদুল লতিফ ও বিদায়ী শিক্ষার্থী আফরিনা খাতুন ও আজমুল হোসেন প্রমুখ।
অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্যে ডা: লিজা-ডা: রতন ম্যাটস ও লিজা নার্সিং ইনস্টিটিউটের চেয়ারম্যান ডা: আসমা জাহান লিজা বলেন, রোগীরা হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার সাথে সাথে চিকিৎসকের আগে নার্সরাই এগিয়ে আসে। রোগীদের সেবাযত্মে নিজেকে নিয়োজিত রাখে। সেক্ষেত্রে চিকিৎসকের পাশাপাশি নার্সদেরও গুরুত্ব কম নয়। তাই নার্সিং এর পেশার প্রতি শিক্ষার্থীদের গুরুত্ব দিতে হবে এবং এ পেশার প্রতি ভালোবাসা থাকতে হবে বলেও জানান তিনি।
স্বাগত বক্তব্যে ডা: লিজা-ডা: রতন ম্যাটসের অধ্যক্ষ ডা: আমিনুল হক রতন বলেন, স্বাস্থ্য সেবাকে কেন্দ্র করে আমাদের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা অনেক পুরস্কার লাভ করেছে। নার্সিং পেশায় অনেক সুযোগ রয়েছে। পাশাপাশি মাটসের শিক্ষার্থীদেরও নিয়োগের ক্ষেত্রে অনেক সুযোগ রয়েছে। তিনি আরও বলেন, ডা: লিজা-ডা: রতন ম্যাটস ও লিজা নার্সিং ইনস্টিটিউট ছাত্রছাত্রীদের মেধার বিকাশের জন্য প্রতি বছরের মতো এবারও আয়োজন করেছে নবীন বরণ, বৃত্তিপ্রদান, বার্ষিক সাংস্কৃতিক ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান। যা ছাত্রছাত্রীদের মধ্যে ব্যাপক উৎসাহ ও উদ্দীপনার সৃষ্টি করেছে।
অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন আব্দুল বারী হৃদয় ও ফ্লরা করিম।কোরআন তেলোয়াত করেন আবু তালহা, গীতা পাঠ করেন পুর্ণিমা রানী ও বাইবেল পাঠ করেন তিমন।
জাতীয় সঙ্গীতের মাধ্যমে শুরু হয় এ অনুষ্ঠান। এরপর অতিথিদের ফুলেল শুভেচ্ছা জানানো হয়। পাশাপাশি বিদায়ী শিক্ষার্থী এবং নবীন শিক্ষার্থীরা মোমবাতি প্রজ্বলনের মধ্য দিয়ে এবং তাদের মিষ্টিমুখ করিয়ে শুভেচ্ছা জানান অতিথিবৃন্দ। পরে বিদায়ী শিক্ষার্থীদের সম্মাননা স্মারক ক্রেষ্ট প্রদান করা হয়। এবং মনোজ্ঞ সাংষ্কৃতিক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে সমাপ্তি হয় এ অনুষ্ঠানের।