• ৩০শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ , ১৬ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ , ২২শে জিলকদ, ১৪৪৫ হিজরি

কুষ্টিয়ায় তিন হাজার বিঘা পান বরজ পুড়ে ছাই

khaskhabarbd24
প্রকাশিত মার্চ ১০, ২০২৪

কুষ্টিয়ার ভেড়ামারায় পানের বরজে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় ৩ হাজার বিঘা পানের বরজ পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। আজ রিববার বেলা ১১টার দিকে উপজেলার বাহাদুরপুর ইউনিয়নের রায়টা পাথরঘাট এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। বিকাল সাড়ে ৪টার দিকে ফায়ার সার্ভিসের আটটি ইউনিট আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন। ভেড়ামারা ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন অফিসার শরিফুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

প্রাথমিকভাবে আগুন লাগার কারণ ও ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ জানা যায়নি। এছাড়া আগুনে হতাহতের কোনো সংবাদ পাওয়া যায়নি। পান চাষীরা জানিয়েছেন,আনুমানিক তিন হাজার বিঘা পানের বরজ পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। বিকাল সাড়ে ৪টার দিকে ফায়ার সার্ভিসের আটটি ইউনিট আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন। প্রচণ্ড বাতাস ও পানি সংকটে আগুন নেভাতে বেগ পেতে হয়েছে।

পান চাষি তোফাজ্জল হোসেন কাঁদতে কাঁদতে বলেন, সকাল ১১টার দিকে রায়টা পাথরঘাট এলাকা থেকে অগ্নিকাণ্ড শুরু হয়। তারপর আড়কান্দী ও মাধবপুর গ্রামের মাঠের আনুমানিক চার থেকে পাচ হাজার বিঘা জমির পানের বরজ পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। প্রতি বিঘায় কমপক্ষে তিন লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে। আমার দুই বিঘা পান ছিল। দুই বিঘায় প্রায় ছয় লাখ টাকার পান হত। সম্পূর্ণ পুরোটাই পুড়ে ছাই হয়ে গেছে।

ক্ষতিগ্রস্ত পান চাষি খলিল হোসেন বলেন, আমার দুই বিঘা পান ছিল। সবকিছু উড়ে ছাই হয়ে গেছে। আমার ৫ থেকে ৬ লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে। মোট চার হাজার থেকে ৫ হাজার বিঘা পানের বরজ পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। বিকাল সাড়ে চারটার দিকে ফায়ার সার্ভিস ও স্থানীয়রা আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে।

বাহাদুরপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সোহেল রানা বলেন, শতশত পান চাষির কোটি কোটি টাকার ক্ষতি হয়ে গেছে। রায়টা থেকে শুরু করে মাধবপুর পর্যন্ত সব পুড়ে গেছে। প্রায় তিন থেকে চার হাজার বিঘা পানের বরজ পুড়ে ছায় হয়ে গেছে। ফায়ার সার্ভিস আগুন নিয়ন্ত্রণে এনেছে।