• ৩০শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ , ১৬ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ , ২২শে জিলকদ, ১৪৪৫ হিজরি

কুষ্টিয়ায় বিশ্ব ভোক্তা অধিকার দিবস পালন সকলের নিষ্ঠা ও সততার মাধ্যমে সমাজ পরিবর্তন হয় একারনে প্রথমে মানুষীকতা পরিবর্তন করতে হবে

khaskhabarbd24
প্রকাশিত মার্চ ১৫, ২০২৩
‘নিরাপদ জ্বালানি, ভোক্তাবান্ধব পৃথিবী’ এই প্রতিপাদ্য নিয়ে কুষ্টিয়ায় বিশ্ব ভোক্তা-অধিকার দিবস উদযাপন করা হয়েছে। আজ বুধবার (১৫ মার্চ) সকালে জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে বিশ্ব  ভোক্তা অধিকার দিবসের আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। জেলা প্রশাসন ও জাতীয় ভোক্তা-অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন, কুষ্টিয়ার জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ সাইদুল ইসলাম।
এসময় তিনি বলেন, সকল মানুষই কোন না কোন ভাবে ভোক্তা তাই সুস্থ ও সৎ ভাবে জীবন যাপন করার জন্য সব সময় নিজেকে দিয়ে চিন্তা করতে হবে তাহলে অনেক কিছু নির্ণয় করা যাবে। ধর্মীয় অনুশাসন সকল প্রকার অন্যায় কাজ থেকে বিরত রাখে উল্লেখ করে ব্যবসায়ীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, ব্যবসা একটা পবিত্র আয়ের উৎস তাই ভোক্তার ক্ষতি করে কোন পন্য বিক্রয় করা যাবে না মনে রাখতে হবে আজ আমি যা খাওয়াচ্ছি কাল আমি এবং আমার পরিবারকে সেইগুলি খেতে হবে। তিনি আরও বলেন, সকলের নিষ্ঠা ও সততার মাধ্যমে সমাজ পরিবর্তন হয় একারনে প্রথমে মানুষীকতা পরিবর্তন করতে হবে।
কুষ্টিয়ার অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আ. ন. ম. আবুজর গিফারীর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় উপস্থিত ছিলেন, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক, উন্নয়ন ও মানবসম্পদ ব্যবস্থাপনা)  মোছা: শারমিন আক্তার, স্থানীয় সরকারের উপ-পরিচালক আরিফুজ্জামান, কনজুমারস্ এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ক্যাব) কুষ্টিয়া জেলা শাখার সাধারন সম্পাদক নাফিজ আহম্মেদ খান টিটু, কুষ্টিয়া কেমিস্ট এন্ড ড্রাগিষ্ট সমিতির সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা রফিকুল আলম টুকু, জেলা সিিনয়র তথ্য অফিসার আমিনুল ইসলাম, জেলা সিনিয়র কৃষি বিপণন কর্মকর্তা আব্দুস সালাম তরফদার, বাফা কুষ্টিয়া’র সেক্রেটারী আক্কাস আলী ও এনএস রোড দোকান মালিক কল্যাণ সমিতি সাধারন সম্পাদক মকবুল হোসেন।
আলোচনা সভায় স্বাগত বক্তব্য দেন, জাতীয় ভোক্তা-অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর,কুষ্টিয়ার সহকারী পরিচালক সুচন্দন মন্ডল। স্বাগত বক্তব্যে জাতীয় ভোক্তা-অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর,কুষ্টিয়ার সহকারী পরিচালক সুচন্দন মন্ডল জানান, ‘ভোক্তা অধিকার সর্বজনীন। পণ্যের ন্যায্যমূল্য ও গুণগত মান নিশ্চিত করার মাধ্যমে ভোক্তা অধিকার নিশ্চিত করার লক্ষ্যে ‘ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন ২০০৯’ প্রণয়ন করা হয়েছে। আইন প্রণয়নের পাশাপাশি এর যথাযথ প্রয়োগ অত্যন্ত জরুরি। আইনের যথাযথ বাস্তবায়নের জন্য প্রয়োজন জনপ্রতিনিধি, ব্যবসায়ী, প্রজাতন্ত্রের কর্মচারী ও জনগণের সম্মিলিত প্রচেষ্টা। ভোক্তা-অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর কুষ্টিয়া ভোক্তাদের আস্থা অর্জনে আরো বেশি সচেষ্ট থাকবে বলে আমি প্রত্যাশা করি।
এরআগে “বিশ্ব ভোক্তা-অধিকার দিবস ২০২৩” উপলক্ষ্যে বর্ণাঢ্য র‍্যালি বের করা হয়। এসময় জেলা প্রশাসনের কর্মকর্তা-কর্মচারী, কনজুমারস্ এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ক্যাব) এর প্রতিনিধি দল সহ বিভিন্ন ইলেকট্রনিক্স ও প্রিন্ট মিডিয়ার গণমাধ্যমকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।